ষাটের দশকে যে মাপকাঠিতে নির্বাচিত হতো বিশ্বসুন্দরী

লাইফস্টাইল ডেস্ক : বিয়ের জন্য পাত্রী খুঁজতে ’প্রথমে দর্শণধারী, পরে গুণবিচারী’ এই নীতিই বেছ নেন বেশিরভাগ মানুষ।  শুধু বিয়ে নয়, বিশ্বের যে কোনও সুন্দরী প্রতিযোগিতাতেও মানা হয় এই নীতি।

পঞ্চাশ-ষাটের দশকে সুন্দরী প্রতিযোগিতাতেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। কিন্তু, সৌন্দর্যের সেই গুণবিচারের কিছু অদ্ভুত মাপকাঠি ছিল সেইসময়।

১৯৫৯ সালের একটি চার্টে উল্লেখ রয়েছে মিস ইউনিভার্স হওয়ার মাপকাঠি। যা এককথায় যথেষ্ট অপমানজনক। জেনে নিন সেই মাপকাঠি।

১) কাঁধ বেশি চওড়া কিনা।

২) কাঁধ বেশি ঢালু কিনা।

৩) নিতম্ব বেশি চওড়া কিনা।

৪) পিঠ বেশি চওড়া কিনা।

৫) পা কত লম্বা, আবেদন কেমন।

৬) বিভাজিকার আবেদন।

৭) মুখমণ্ডলের সৌন্দর্য।

 

(টুডে সংবাদ/তা.সু.পি)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com ভিজিট করুন এবং

নিউজটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন