তিমির পেটে তিনদিন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কুমির গিলে খাওয়ার পরও বেঁচে থাকে একজন মানুষ রূপকথার গল্পে এমনটা তো কতোই দেখা যায়। কিন্তু বাস্তবে কি এটা সম্ভব? স্পেনের এক জেলে কুমিরের পেটে তিনদিন থাকার পরও দিব্যি বেঁচে আছেন। চমকে উঠলেন তো? লুইগি মার্কেজ নামের এই মানুষটি কুমিরের পেটে তিনদিন থেকে প্রাণ নিয়ে বেরিয়ে এসে চারদিকে হৈচৈ ফেলে দিয়েছেন।

জীবিকার তাগিদে স্পেনের সমুদ্রে মাছ ধরেন লুইগি। ঘটনার দিনও তাই করছিলেন। আচমকা কিছু বুঝে ওঠার আগেই সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়ে যান তিনি। ঝড় থামার পর তাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া গেল না। কোস্টগার্ডরাও খুঁজে না পেয়ে হাল ছেড়ে দেন। তিনদিন পর দেখা মিললো লুইগির। তারপর তিনি যে বর্ণনা দিলেন তা সত্যিই চমকপ্রদ!

লুইগির দাবি, সেদিন নৌকা ঝড়ের কবলে পড়ার পর একটি তিমি গিলে ফেলে তাকে। ঝড়ের সময় কী হয়েছিল তা কিছুতেই মনে পড়ছে না লুইগির। শুধু যখন চেতনা ফিরে পান, তখন একটি অন্ধকার স্থানে নিজেকে দেখেন তিনি। আলো বলতে একমাত্র হাতের ওয়াটারপ্রুফ ঘড়ির আলো। সেই ঘড়ির মাধ্যমেই সময় মেলাতে থাকেন তিনি। তীব্র আতঙ্কে অস্থির হয়ে পড়েন লুইগি। তবে হাল ছাড়েননি। অবশেষে তিমিটি বমি করে বের করে দেয় লুইগিকে।

(টুডে সংবাদ/তমাল)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com