বাজপেয়ীর মৃত্যুতে মানবতাবাদী দলের শোক

ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ির শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে দিল্লিতে রাষ্ট্রীয় স্মৃতিস্থল শ্মশানে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

শেষকৃত্যানুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীসহ বর্তমান মন্ত্রিসভার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, ভুটানের রাজা জিগমে খেসর নামগিয়াল ওয়াংচুক, আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ করজাই, শ্রীলঙ্কার পররাষ্ট্রমন্ত্রী লক্ষণ কিরিয়েল্লা শেষকৃত্যানুষ্ঠানে যোগ দেন।

মৃত্যুকালে অটল বিহারি বাজপেয়ির বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর। বাজপেয়ি ভারতের তিনবার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। ২০১৪ সালে মোদির সরকার ক্ষমতায় আসার পরে বাজপেয়িকে ভারতরত্ন সম্মাননা দেওয়া হয়। বাজপেয়ির প্রয়াণে সাত দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। বাতিল করা হয়েছে সব সরকারি অনুষ্ঠান।

রাজনৈতিক কারণে বিয়ে করার সময় সুযোগ হয়ে ওঠেনি বাজপেয়ির। রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘের জন্য তিনি আজীবন অবিবাহিত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

আজ বিকেলে বাংলাদেশ মানবতাবাদী দল-বিএইচপি’র চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান ও মহাসচিব ড. সুফি সাগর সামস্ দলের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে এক শোকবার্তা পাঠিয়েছেন।  শোকবার্তায় তারা বলেছেন, অটল বিহারী বাজপেয়ির মৃত্যুতে আমাদের দলের সকল নেতাকর্মী শোকাভিভুত। বাজপেয়ির মৃত্যুতে বাংলাদেশ হারিয়েছে একজন প্রতিবেশী রাজনৈতিক পরম বন্ধু। তাঁর মৃত্যুতে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার রাজনৈতিক অঙ্গনের অপুরণীয় ক্ষতি হলো।

শোকবার্তায় বাংলাদেশ মানবতাবাদী দল-বিএইচপি বাংলাদেশের জনগণের পক্ষ থেকে বাজপেয়ির শোকসন্তপ্ত পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের প্রতি  গভীর সমবেদনা ও শ্রদ্ধা জানিয়েছে।

টুডে সংবাদ ডেস্ক :

(টুডে সংবাদ/তমাল)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com