১৩০ টাকায় চুল কাটিয়ে মন্ত্রীর আফসোস!

ইমানুর রহমান,ঢাকা : বাংলার সুবেদার শায়েস্তা খাঁ’র আমলে এক টাকায় ৮ মণ চাল পাওয়া যেতো জানা গেলেও সেসময় চুল কাটাতে নাপিতকে কত টাকা দেওয়া লাগতো সেটা জানা যায়নি। তবে ধারণা করাই যায়, অন্যান্য সবকিছুর মতো এটাও ছিল যথেষ্ট সস্তা।

শায়েস্তার খাঁ’র আমল শেষ হয়েছে, যুগে যুগে বেড়েছে নিত্য পণ্যের দাম। কিছু কিছু ক্ষেত্রে এর পরিমাণ একেবারে আকাশছোঁয়া, যা শুনলে এ প্রজন্মের ছেলে-মেয়েরা গালগল্প বলেই মনে করবে।

সম্প্রতি এমনই এক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। চুল কাটাতে গিয়ে জীবনের সর্বোচ্চ বিল পরিশোধ করতে হয়েছে তাকে, যার পরিমাণ ১৩০ টাকা।

শনিবার (১১ আগস্ট) সন্ধ্যায় নিজের ফেসবুক আইডি থেকে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে মন্ত্রী জানান,

‘আজ জীবনের সবচেয়ে বেশি দাম দিয়ে চুল কাটতে হলো। একদম গুনে গুনে ১৩০টাকা। আগে কখনও ৫০ টাকার বেশি দিইনি। নানা যখন আশুগঞ্জ বাজারে চুল কাটাতেন তখন নাপিতের কাছে ইটের আসনে দুই আনা আর চেয়ারে ছয় আনা দিয়ে কাটতে হতো। অবশ্য নানা তখন বোনাস দিতেন-দুটি রসগোল্লা। আর নানী বা মা যখন কাটতেন তখন কেবল একটা ব্লেডের দাম। মা আর নানী দুজনকেই মিস করি।’

টুডে সংবাদ/উদয়া ।