মৌলভীবাজারে ভুলে ভরা স্মার্টকার্ড বিতরণ!

এম. এ. কাইয়ুম,মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজার জেলা সদরে ভুলে ভরা বানানে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) স্মার্টকার্ড বিতরণ করেছে নির্বাচন কমিশন। ব্যক্তির নাম, বাবার নাম, জন্ম সালে ব্যাপক ভুলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সাথে মৌলভীবাজার জেলার ইংরেজী বানান Moulvibazar এর স্থলে Maulvibazar লেখা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন স্থানীরা। এসব ভুলের কারণে প্রবাসী অধ্যুসিত এই এলাকার মানুষকে দেশ বিদেশে নানা বিড়ম্বনায় পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়ছে।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৩৪ হাজার ৩শত ৭ জন। তার মধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে ২ লাখ ২২ হাজার ৮শত ৫২টি স্মার্ট কার্ড এসেছে। বৃহস্পতিবার থেকে তা বিতরণ করা হচ্ছে। বিতরণকৃত এসব কার্ডে সবটিতে জেলার নামের বানান ভুল রয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় মৌলভীবাজার পৌরসভা কার্যালয়ে সরেজমিনে দেখা যায় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হচ্ছে। বিতরণকৃত এসব কার্ডের জন্মস্থানের (place of birth) এর স্থলে মৌলভীবাজারের নাম ইরেজিতে ‘Moulvibazar’ ’ লেখায় বানানে ভুল করে ‘Maulvibazar’ লেখা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী M বানানে o দেয়ার নিয়ম থাকলেও সেখানে A ব্যবহার করা হয়। যা নিয়ে সচেতন মহল ক্ষুব্ধ প্রতিক্রীয়া জানিয়েছেন।

মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল হামিদ মাহবুব বলেন, এটি একটি প্রবাসী অধ্যুসিত জেলা। এখানকার মানুষ নিয়মিত দেশের বাইরে যাওয়া আসা করে। কিন্তু জেলার নামের বানান ভুল হওয়াতে তারা সে কাজে বাধাগ্রস্ত হবেন। সরকারের বিশাল ব্যায়ের তৈরী এই কার্ডে ভুল থাকা খুবই দু:খজনক।

পৌর মেয়র ফজলুর রহমান বলেন, নির্বাচন কমিশন দায়িত্বজ্ঞানহীন একটা কাজ করেছে। মৌলভীবাজার শুধু একটি উপজেলার নাম নয় এটি একটি জেলারও নাম। সদর উপজেলায় এই নামের বানান ভুল মানে সারা জেলার ক্ষেত্রে এমন ভুল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ভুল বানানের এসব কার্ড বিতরণ বন্ধ করে সংশোধন করে বিতরণ করতে হবে। নতুবা মানুষ নানা কাজে ভোগান্তিতে পড়বে।

এছাড়া নাগরিকদের যেসব স্মার্ট কার্ড প্রদান করা হয়েছে তাতে পূর্বের কার্ডে যে তথ্য ছিলো স্মার্ট কার্ডে তার অনেক জায়গায় ভুল রয়েছে। কারো নিজের নামে, কারো বাবার নাম আবার কারো স্বামীর নাম এবং কি নিজের জন্ম তারিখে ভুল করে বয়স কমিয়ে দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন অনেকে।

পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মিন্টু সরকার বলেন, আমার জন্মসাল হচ্ছে ১৯৭৯ যা আমার পূর্বের আইডি কার্ডে সঠিক ছিলো কিন্তু নতুন স্মার্টকার্ডে আমার বয়স ১০ বছর কমিয়ে জন্মসাল ১৯৮৯ লেখা এসেছে। এখন এই আইডি কার্ড নিয়ে আমি বিপাকে পড়েছি। সার্টিফিকেট ও কার্ডে কোন বয়সের মিল নেই।

একই এলাকার সন্ধ্যা রানী পাল অভিযোগ করে বলেন, আমার পূর্বের এনআইডি কার্ডে স্বামীর নাম উল্লেখ ছিলো কিন্তু নতুন কার্ডে এসেছে এসেছে বাবার নাম। আমার বাবার নাম হবে রতিন্দ্র রুদ্র পাল কিন্তু স্মার্ট কার্ডে সে নাম ভুল করে রবীন্দ্র রুদ্র পাল লেখা হয়েছে।

নামের বানান ভুল হয়েছে এমন অভিযোগ করে কনক রানী পাল বলেন, আমার মায়ের নাম হচ্ছে ‘স্নেহলতা পাল’ যা আগর আইডিতে ঠিক ছিলো কিন্তু নতুন কার্ডে ‘পাল’ বানানে ভুল করে ‘পালা’ লেখা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান বলেন, ‘মৌলভীবাজার’ বানেনর ভুলটি আমরা দেখেছি। বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে যোগাযোগ করেছি। এ ভুলে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের কোন দায় নেই।

অন্যনান্য ভুলের ব্যাপারে তিনি বলেন, আগের আইডি কার্ডে যা ছিলো নতুন স্মার্টকার্ডে তাই আসবে। তাদের সেখানে ভুল থাকলে এখানেও ভুল আসবে। তবে আমাদের কাছে প্রমাণসহ আবেদন করলে তা সংশোধন করে দেব।

উল্লেখ্য, বুধবার (৮ আগস্ট) ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনার সাথে কথা বলে স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। এর বৃহস্পতিবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এসব কার্ড বিতরণ করা হচ্ছে।

টুডে সংবাদ/ইমানুর রহমান