একের পর এক প্রেমের প্রস্তাব, আত্মহত্যা করেছে কিশোরী

টুডে সংবাদ ডেস্ক : বাড়ি থেকে বেরিয়ে কাঁচা রাস্তা ধরে হেঁটে স্কুলে যাওয়ার পথে প্রায় দিনই দাঁড়িয়ে থাকতো ১৫ বছরের এক কিশোর। প্রায় দিনই প্রেমের প্রস্তাব দিতো সে। এক পর্যায়ে অভিমানে আত্মহত্যা করেছে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুর্শিদাবাদের কান্দির নবপল্লিতে। এ ঘটনায় ওই কিশোরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন কিশোরীর বাবা। কান্দি থানার পুলিশ ইতোমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে।

মৃত ছাত্রীর বাড়ির সদস্যদের অভিযোগ, বেশ কিছুদিন ধরে স্কুল যাওয়ার পথে এবং রাস্তাঘাটে দেখা হলেই ওই ছাত্রীকে বিরক্ত করত এক কিশোর। পুলিশ বলছে, ওই কিশোরীর সহপাঠী অভিযুক্ত কিশোর। এমনকি কিশোরীকে জোর করে বিয়ে করার চেষ্টাও করেছে সে। কিশোরীর পরিবার বার বার আপত্তি জানালেও কাজ হয়নি তাতে।

একটানা এ ধরনের প্রস্তাবে ওই ছাত্রী মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিল বলেই দাবি তার পরিবারের সদস্যদের। অভিমানে গত বৃহস্পতিবার রাতে নিজের ঘরে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

কিশোরীর ঝুলন্ত মরদেহ নজরে আসার পরে পরিবার থেকে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

ওই কিশোরী এবং অভিযুক্ত কিশোর কান্দি নবপল্লি জেসিএস হাইস্কুলে পড়ত। ঘটনার জেরে কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা অভিযুক্ত ছাত্রের নামে কান্দি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পর থেকে পলাতক রয়েছে কিশোর।

টুডে সংবাদ/ইমানুর রহমান/উদয়া