নেত্রকোণায় ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক আটক

নেত্রকোনা প্রতিনিধি : নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসী ধর্ষক মোহন মিয়া (২০) কে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেছে।

এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষক মোহনের বিরুদ্ধে কেন্দুয়া থানায় মামলা করেছেন। এদিকে মঙ্গলবার (২৬ জুন) দুপুরে ধর্ষক মোহন মিয়া (২০) কে নেত্রকোনা আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। একই সাথে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ধর্ষিতা ওই স্কুলছাত্রীকেও নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

উপজেলার কান্দিউড়া ইউনিয়নের ব্রাহ্মণজাত গ্রামে গতকাল সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও ধর্ষিতা স্কুলছাত্রীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার কান্দিউড়া ইউনিয়নের বেজগাতি গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে মোহন মিয়া বিভিন্ন সময়ে পার্শ্ববর্তী ব্রাহ্মণজাত গ্রামের ওই ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেওয়াসহ নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। ঘটনার দিন সোমবার সকালে বাড়িতে একা পেয়ে দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে বখাটে মোহন মিয়া জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

একপর্যায়ে মেয়েটির চিৎকারে তার অভিভাবক ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে গেলে ধর্ষক মোহন মিয়া পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে গ্রামবাসী তাকে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করে। পরে এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মোহন মিয়াকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করার পর পুুলিশ তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আজ আদালতে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কেন্দুয়া থানার এসআই মো. আশরাফুল আলম জানান, ছাত্রীটির মা বাদী হয়ে মোহন মিয়াকে আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। আজ মোহন মিয়াকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। সেই সাথে মেয়েটিকেও ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

টুডে সংবাদ/ইমানুর/উদয়া