বলিউড তারকাদের আইটেম গানে নায়িকার পারিশ্রমিক কত?

সিনেমায় ‘আইটেম গান’-এর ধারণা শুরু হয়েছে বলিউড থেকে। এখন তো এমন অবস্থা দাঁড়িয়েছে, ‘আইটেম গান’ ছাড়া বাণিজ্যিক ছবি লবণ ছাড়া তরকারির মতো। ছবির ‘স্বাদ’ বাড়াতে বলিউডের প্রযোজকেরা কোটি কোটি রুপি ব্যয় করে নায়িকাদের দিয়ে আইটেম গান তৈরি করেন। বলিউড তারকাদের মধ্যে আইটেম গানে নাচার জন্য কে কত পারিশ্রমিক নেন, জেনে নিন এই প্রতিবেদনে।

বিনোদন ডেস্ক :

দীপিকা পাড়ুকোন
‘আইটেম গান’-এ খুব বেশি আগ্রহী নন দীপিকা পাড়ুকোন। তবে নিজের ছবি হলে ভেবে দেখতে পারেন। তাঁর অভিনীত ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ ছবিতে একটি আইটেম গানের জন্য ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছেন। শোনা যায়, ‘লাভলি হো গায়ি ইয়ার’ শিরোনামের সেই গানে নেচে দীপিকা আট কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়াপ্রিয়াঙ্কা চোপড়া

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
কিছুদিন আগে একটি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের মঞ্চে পাঁচ মিনিট উপস্থিত থাকার জন্য প্রিয়াঙ্কা চোপড়া পাঁচ কোটি রুপি চাওয়ায় বেশ শোরগোল পড়েছিল। কেউ যদি ভেবে থাকেন, এই নায়িকা নতুন করে নিজের দাম বাড়িয়েছেন, তাহলে ভুল করছেন। কারণ, আজ থেকে পাঁচ বছর আগে সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘গলিয়ো কি রাসলীলা রাম-লীলা’ ছবির একটি আইটেম গানে নেচে প্রিয়াঙ্কা নিয়েছিলেন ছয় কোটি রুপি।

সোনাক্ষী সিনহাসোনাক্ষী সিনহা

সোনাক্ষী সিনহা
২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া ‘বস’ ছবির ‘পার্টি অল নাইট’ গানের কথা মনে আছে? অক্ষয় কুমার অভিনীত ছবির এই একটি মাত্র গানে দেখা গিয়েছিল সোনাক্ষী সিনহাকে। আইটেম গানটিতে উপস্থিতির জন্য সোনাক্ষী পারিশ্রমিক হিসেবে নিয়েছিলেন ছয় কোটি রুপি।

কারিনা কাপুর খানকারিনা কাপুর খান

কারিনা কাপুর খান
নিজের ‘হিরোইন’ (২০১২) ছবির ‘হালকাত জওয়ানি’ গানের জন্য কারিনা কাপুর খান পারিশ্রমিক পেয়েছিলেন পাঁচ কোটি রুপি। অবশ্য এরপর একই বছর সালমান খানের ‘দাবাং টু’ ছবির ‘ফেবিকল’ গানে নাচার জন্য কোনো পারিশ্রমিকই নেননি এই নায়িকা। বন্ধু হিসেবে সালমানের জন্য বিনা মূল্যেই কাজ করে দিয়েছিলেন। যদিও ‘ফেবিকল’ কারিনার আইটেম নাম্বারগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়।

মালাইকা অরোরামালাইকা অরোরা

মালাইকা অরোরা
মালাইকা অরোরা বলিউডের জনপ্রিয় ‘আইটেম গার্ল’। ‘মুন্নি বদনাম’, ‘মাহি ভে’, ‘পান্ডে জি’সহ কয়েকটি আলোচিত আইটেম গানে নেচেছেন তিনি। ‘হাউসফুল টু’ ছবির আইটেম গান ‘আনারকলি ডিসকো চালি’তে নেচে তিনি পেয়েছেন এক কোটি রুপি।

বিপাশা বসুবিপাশা বসু

বিপাশা বসু
‘ওমকারা’ (২০০৬) ছবির ‘বিড়ি জালাই লে’ গান দিয়ে নতুন করে আলোচনায় এসেছিলেন বিপাশা বসু। এই আইটেম গানে নাচার জন্য তিনি নিয়েছিলেন ৬০ লাখ রুপি। কিন্তু এখানে তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর নিজের চাহিদা বাড়িয়ে দেন বিপাশা। এরপর প্রতি আইটেম গানের জন্য তিনি পারিশ্রমিক হাঁকেন এক কোটি রুপি।

ক্যাটরিনা কাইফক্যাটরিনা কাইফ

ক্যাটরিনা কাইফ
হৃতিক রোশন ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার ‘অগ্নিপথ’ ছবিতে ক্যাটরিনা কাইফ ছিলেন অতিথি শিল্পী। কেবল একটি গানে দেখা যায় তাঁকে। তবে ‘চিকনি চামেলি’ শিরোনামের সেই আইটেম গান ছবির থেকে বেশি হিট হয়। এই গানে উপস্থিতির জন্য ক্যাট পারিশ্রমিক পান সাড়ে তিন কোটি রুপি।

সানি লিওনসানি লিওন

সানি লিওন
সানি লিওনকে বলিউডের অনেকগুলো আইটেম গানে দেখা গেছে। ধারণা করা হয়, তাঁর সব কাজের মধ্যে এখন পর্যন্ত ‘বেবি ডল’ আইটেম গানটি সর্বাধিক জনপ্রিয়। তবে এই গানে নাচার জন্য নাকি নামমাত্র পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন সানি। কিন্তু এরপর কোনো ছবির আইটেম গানে তাঁকে নেওয়ার জন্য প্রযোজকদের গুনতে হচ্ছে তিন কোটি রুপি।

মল্লিকা শেরাওয়াতমল্লিকা শেরাওয়াত

মল্লিকা শেরাওয়াত
মল্লিকা শেরাওয়াতকে এখন বলিউডের ছবিতে দেখা না গেলেও একসময় নানা বিতর্কিত কাজ করে বেশ আলোচনায় থাকতেন। আইটেম গানে বেশ চাহিদা ছিল এই তারকার। ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া সঞ্জয় দত্ত ও কঙ্গনা রনৌতের ‘ডাবল ধামাল’ ছবির ‘জালেবি বাই’ গানে নাচার জন্য মল্লিকা পারিশ্রমিক পেয়েছিলেন এক কোটি রুপি।

এমটিভি ইন্ডিয়া