আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক মাত্র ১ জন

অপূর্ব লাল সরকার, আগৈলঝাড়া (বরিশাল) : বরিশালের আগৈলঝাড়ায় মাত্র ১ জন চিকিৎসক দিয়ে চলছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবা। মঞ্জুরীকৃত পদের মধ্যে আছেন মাত্র ৬ জন চিকিৎসক। ফলে ৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে উপজেলার প্রায় তিন লক্ষাধিক সাধারণ জনগণ।

হাসপাতালসূত্রে জানা গেছে, ১৯৭২ সালে আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলায় ৩১ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠা করা হয়। বহু বছর পূর্বে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশে আরেকটি দ্বিতল ভবন নির্মাণ করে হাসপাতালটি ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হয়। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে ২৬টি চিকিৎসকের পদ থাকলেও আছেন মাত্র ৬ জন। এই ৬ জন চিকিৎসকের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আলতাফ হোসেন ব্যস্ত থাকেন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন সভা ও প্রশাসনিক কর্মকান্ডে। আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. বখতিয়ার আল-মামুন, মেডিকেল অফিসার ডা. কেএম সাকিব ও ডা. জ্যোতি রানী বিশ্বাস ২ মাসের বুনিয়াদী প্রশিক্ষণে ঢাকায় রয়েছেন। ডেন্টাল সার্জন ডা. মনন কুমার দে এবং মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল্লাহ আল-মামুন হাসপাতালে আগত রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে গিয়ে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছেন।

রোগীদের স্বজনরা অভিযোগ করে জানান, আমাদের প্রতিনিয়তই হাসপাতালে এসে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়। অনেক সময় চিকিৎসক না পেয়ে বাড়ি ফিরে যেতে হয়। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. আলতাফ হোসেন বলেন, চিকিৎসক সংকটের কথা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানানো হয়েছে। শীঘ্রই সমস্যার সমাধান হতে পারে।

টুডে সংবাদ/ইমানুর রহমান