ঝিনাইদহের সাধুহাটীতে আ’লীগের সমাবেশ পন্ড

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ১৪৪ ধারা জারীর কারণে মঙ্গলবার বিকালে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাধুহাটী ঈদগাহ মাঠে আয়োজিত আওয়ামীলীগের সমাবেশ হতে পারেনি। একই স্থানে আওয়ামীলীগের ইউনিয়ন সভাপতি খলিলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক নাজির উদ্দীন চেয়ারম্যান গ্রুপ সমাবেশের ডাক দিয়ে মাইকিং করে। এতে ইউনিয়ন জুড়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আইনশৃংখলা রক্ষায় উপজেলা প্রশাসন সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সেখানে সকল প্রকার সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষনা করে। স্থানীয় ডাকবাংলা পুলিশ ক্যাম্পের তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আবুল কাসেম জানান, সাধুহাটী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের অভ্যন্তরীন কোন্দলের কারণে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এতে ৩ জন আহত হয়। সে কারণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারী করে মাইকিং করা হয়। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ খবরের সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ বিষয়ে সাধুহাটী ইউনিয়ন ও ঝিনাইদহ শহরে সোমবার সন্ধ্যায় মাইকিং করা হয়। তিনি বলেন একই স্থানে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপ মিটিং আহবান করলে আইনশৃংখলা রক্ষায় মঙ্গলবার দিনব্যাপী ১৪৪ ধারা জারী করা হয়। এদিকে, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাধুহাটী ইউনিয়নে যুবলীগ কর্মিরা হামলা চালিয়ে ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতিরসহ তিন জনকে পিটিয়ে জখম করেছে। এ ঘটনায় বোড়াই গ্রামের মৃত আঃ রহমানের ছেলে এরশাদ আলী (৩৫) আহত হয়েছেন। তিনি ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছের। হামলায় আহত সাবেক ইউপি সদস্য আঃ জলিল ও মতিয়ার রহমান প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। আহত এরশাদ আলী বলেন, আমরা দশমাইল বাজারের সফি উদ্দিনের চায়ের দোকানে চা খাচ্ছিলাম। হটাৎ ইউনিয়ন যুবলীগের সাধরন সম্পাদক শুকুর আলী, কাশেম, আলীম, আব্দার ও বারেক পূর্ব পরিকল্পিতভাবে আমাদের উপর হামলা করে। আমরা এ ঘটনার বিচার দাবী করছি এবং চুয়াডাঙ্গা থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।