৫ রকমের বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের কথা জানালেন বিশেষজ্ঞরা

16

লাইফস্টাইল ডেস্ক : প্রত্যেক মানুষই নিজের প্রিয়জনকে খুব ভালবাসে। সেই ভালবাসাটাকে সম্মানও করে সবাই। তবু, অনেক মানুষই কোনও না কোনওভাবে জড়িয়ে পড়েন বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে। কিন্তু কেন?

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ভালবাসা কিন্তু কোনও অনুভূতি নয়, বরং ব্রেন সিস্টেম। তাঁরা জানিয়েছেন ভালবাসায় পড়লে, মানুষের তিনটি ব্রেন সিস্টেম কাজ করে। প্রথমত, সেক্স ড্রাইভ, দ্বিতীয়ত, প্রেমে রোমান্টিসিজম এবং তৃতীয়ত, সঙ্গী বা সঙ্গীনির সঙ্গ। মানুষ যখন প্রেমে পড়েন, তখন এই তিনটি সিস্টেম আলাদা আলাদাভাবে কাজ করে। একজনের সঙ্গে প্রেমে পড়লে, অনেক মানুষই অন্য আরেক জনের জন্য তীব্র ভালবাসা অনুভব করতে পারেন। আর সেক্স ড্রাইভ কাজ করতে পারে একের বেশি মানুষের জন্যও।

লাইফ অ্যান্ড সোল কোচ, ‌ব়মন লিয়াম্বার মতে, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের ক্ষেত্রে বিভিন্ন মানুষ বিভিন্নভাবে প্রতিক্রিয়া দেন। কিছু মানুষের ক্ষেত্রে এটা চাহিদা হয়ে দাঁড়ায়। আর কিছু মানুষ স্রেফ স্ট্রেস কাটাকে এই ধরনের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। এমনকী স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও।

এই ধরনের সম্পর্ক প্রায়ই দেখা যায়। শুধুমাত্র সেক্সের জন্য একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এঁরা এঁদের জীবনসঙ্গী বা জীবনসঙ্গীনিকে ছাড়তে কোনওভাবে রাজি নন। এঁরা শয্যাসঙ্গী। বিছানার উষ্ণতাই এঁদেরকে কাছে টানে। তবে এই ধরনের সম্পর্ক বেশিদিন টেকে না।

আবেগপ্রবণ সম্পর্ক
অন্য মহিলার প্রতি অনুভুতি থাকা কিংবা আবেগপ্রবণ সম্পর্কও কিন্তু সেক্সুয়াল সম্পর্কের মতো পাপ বলেই ধরা হয়। এই ধরণের সম্পর্ক একেবারে মানসিক। এঁরা প্রতিনিয়ত নিজেদের মধ্যে কথাবার্তা বলা, ম্যাসেজ বিনিময় করে। সময় পেলেই একে অন্যের বিষয়ে ভাবে। শারীরিক সম্পর্ক না থাকলেও প্রতিটি গোপন মুহূর্তের কথা শেয়ার করে এরা।

বিরক্তি থেকে মুক্তি পেতে
বর্তমান সঙ্গীর প্রতি একপ্রকার বিরক্ত হয়েও এই ধরণের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন অনেক মানুষ। এরা নিজেদের সঙ্গী বা সঙ্গীনিকেও ছাড়তে চান না। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ৯০ শতাংশ বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক এই ভাবেই গড়ে ওঠে। বর্তমান সময়ে স্বামী-স্ত্রী’র মধ্যে কোনও সমস্যা হলে সেই সমস্যা না মিটিয়ে একে-অপরকে দোষারোপ করে। ফলে বিরক্ত হয়েই কোনও ব্যক্তি এই ধরনের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে।

কাল্পনিক সম্পর্ক

মানুষ চাহিদামতো কল্পনার জন্ম দিতে পারে। ধরা যাক, আপনার কোনও কলিগ বা বন্ধু আপনার সঙ্গে সময় কাটাতে পছন্দ করে। আর আপনিও ভেবে নিয়েছেন যে সে সবকিছু ছেড়ে আপনার সঙ্গে থাকতে শুরু করবে। এমনটা বহু ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে।

শারীরিক ও মানসিক সম্পর্ক
যে কোনও বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের মধ্যে এ ধরনের সম্পর্ক সবথেকে ভয়ানক। শারীরিক এবং মানসিক দুই দিক থেকেই জড়িয়ে পড়ে দু’জন। বলা যেতে পারে, বাস্তবে তারা একসঙ্গেই রয়েছেন। একাত্মভাবে। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, এই ধরনের সম্পর্ক খুব কম ক্ষেত্রেই দেখা যায়। তবে এই ধরনের সম্পর্কের ভবিষ্যত ডিভোর্স এবং পুনর্বিবাহ।

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com