যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী শিক্ষার্থীদের ভাগ্য অনিশ্চিত

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে অধ্যয়নরত লাখো অনিবন্ধিত অভিবাসী শিক্ষার্থীকে পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দিতে এবং তাঁদের দেশ থেকে বিতাড়ন না করার জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সে দেশের সাড়ে তিন শতাধিক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
যুক্তরাষ্ট্রে আনুমানিক ১২ লাখ শিশু তাদের অভিভাবকদের সঙ্গে অবৈধভাবে দেশটিতে আসার পর বসবাসের অনুমতি ছাড়া বেড়ে ওঠে মাধ্যমিক পর্যায়ের পড়াশোনা শেষ করেছে। প্রায়ই তারা মাতৃভাষার চেয়ে ইংরেজিতে সহজে কথোপকথন করে থাকে। এর মধ্যে প্রায় ৭ লাখ ৪০ হাজার শিশু ২০১২ সালে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা অনুমোদিত ডিএসিএ (ডিফার্ড অ্যাকশন ফর চাইল্ডহুড অ্যারাইভালস) নামের এক কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছে। এই কর্মসূচির আওতায় তারা স্বদেশে প্রত্যাবর্তন হওয়া থেকে সুরক্ষা পাচ্ছে।
এই কর্মসূচি এসব শিক্ষার্থীর জীবনযাত্রায় স্বাভাবিক অবস্থাও ফিরিয়ে এনেছে। কিন্তু গত মাসে যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনী প্রচারণার সময় বলেছিলেন, জয়ী হলে অবিলম্বে তিনি এ কর্মসূচি বাতিল করে দেবেন।
এ কর্মসূচি শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার খরচ, গ্রিন কার্ড বা যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ী বসবাসের সুবিধা বা কোনো কাজের অনুমতিপত্রের জোগান দেয় না। তবে শিক্ষার্থীরা যদি ১৬ বছর বয়সের আগেই যুক্তরাষ্ট্রে এসে থাকে বা ২০১২ সালে বয়স অনূর্ধ্ব ৩১ বছর হয়ে থাকে, সে ক্ষেত্রে কর্মসূচির আওতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা, চাকরি ও গাড়ি চালনার অনুমতিপত্র পাওয়ার সুযোগ পায় তারা। এটি দুই বছর পরপর নবায়নযোগ্য।

(টুডে সংবাদ/তমাল)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.comভিজিট করুন, লাইক দিন এবং  শেয়ার করুন