স্মার্টফোন নিয়ে উন্মাদনার দিন শেষ!

77

বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডেস্ক : এ বছরই বিশ্বজুড়ে স্মার্টফোনের উন্মাদনা অনেকটা কমে এসেছে। কারণ এর বিক্রির হার আর আগের মতো উর্ধ্বগতিতে নেই। অবশ্য ৪জি স্মার্টফোনের বাজার এখনো আশা ছড়াচ্ছে নির্মাতাদের।

২০১৬ সালে বিশ্বজুড়ে স্মার্টফোন বিক্রির সর্বসাম্প্রতিক ফোরকাস্ট করেছে ইন্টারন্যাশনাল ডেটা কর্পোরেশন (আইডিসি)। এই মার্কেট রিসার্ট ফার্ম জানায়, বিশ্বে স্মার্টফোন শিপমেন্ট হয়েছে ১৪৫ বিলিয়ন ইউনিট। প্রতিবছর এই সংখ্যার বৃদ্ধি পায়। এ বছর বৃদ্ধির হার ০.৬ শতাংশ। কিন্তু এই বৃদ্ধি হার ২০১৪-২০১৫ সালের চেয়ে ১০.৪ শতাংশ কম।

এদের মধ্য একমাত্র আশা জাগাচ্ছে ৪জি স্মার্টফোন। এর প্রতি আগ্রহ বাড়ছে মানুষের। ২০১৬ সালে ৪জি স্মার্টফোনের বিক্রি হার বেড়েছে ২১.৩ শতাংশ। এশিয়া, ল্যাটিন আমেরিকা, সেন্ট্রাল ও ইস্টার্ন ইউরোপে এবং মধ্যপ্রাচ্যের ক্রমবর্ধমান বাজারের কারণে এই বিক্রি বেশ বেড়েছে।  ২০১৫ সালে ৪জি স্মার্টফোনের ৬১ শতাংশ বিক্রি হয়েছে এসব অঞ্চলে। এ বছরের মধ্যে এসব অঞ্চলেই ৭৭ শতাংশ শিপমেন্ট হবে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে স্মার্টফোন বিক্রি কমে এসেছে আমেরিকা, চীন এবং পশ্চিম ইউরোপে। গত বছর বিক্রির হার এক অঙ্গে সীমাবদ্ধ ছিল। কিন্তু এ বছর বিক্রি আরো কমে এসেছে।

এ পরিস্থিতিতে বেগতিক অবস্থায় পড়েছে অ্যাপল এবং স্যামসাংয়ের মতো বড় নির্মাতারা। এরা তাদের পণ্য বিক্রির হার ব্যাপক কমে এসেছে বলে খেয়াল করছে। এ বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে স্যামসাংয়ের বিক্রি ১৪ শতাংশে নেমে এসেছে। এসব তথ্য দেয় মার্কেট রিসার্চ ফার্ম গার্টনার। বিশেষ করে স্যামসাংয়ের সর্বসাম্প্রতিক ব্যর্থতা গ্যালাক্সি নোট ৭ এর ব্যাটারির সমস্যা টেক জায়ান্টকে বেশ বিপদেই ফেলেছে। ওদিকে অ্যাপলের বিক্রির হার ৬.৬ শতাংশ কমেছে। যদিও তাদের নতুন আইফোন ৭ বেশিদিন হয়নি বাজারে এসেছে।

এর কারণটা কি হতে পারে? এর বিশ্লেষণ বিশাল হবে। তবে এক কথায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ক্রেতারা স্মার্টফোনের অবসাদে আক্রান্তা হয়েছেন। ফোনে আকর্ষণীয় ফিচারের অভাবে তারা একঘেয়ে হয়ে পড়েছেন। এ ছাড়া মোবাইল বিক্রির ক্যারিয়ারগুলো পুরো খুচরা মূল্যে ক্রেতাদের পণ্য কিনতে বাধ্য করছে। ফলে বিক্রি কমে আসবে এটাই স্বাভাবিক।

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com