ব্যবসা ছেড়ে দেব, স্বার্থ-সংঘাত এড়িয়ে চলব : ডোনাল্ড ট্রাম্প

000000000

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা করেছেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর এই কাজে মনোনিবেশ করতে ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা ‘সম্পূর্ণরূপে’ ছেড়ে দেবেন তিনি। তা ছাড়া স্বার্থ-সংঘাতের বিষয়গুলো এড়িয়ে চলবেন।
এ ঘোষণার আগে ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করার পর এই পদের দায়িত্বের সঙ্গে তাঁর ব্যক্তিগত ব্যবসার সম্ভাব্য দ্বন্দ্ব সৃষ্টির আশঙ্কা-উদ্বেগ উড়িয়ে দিয়েছিলেন। ‘ব্যবসা ছাড়ার’ ঘোষণার পাশাপাশি ট্রাম্প বলেছেন, চলতি ডিসেম্বরে তিনি তাঁর সন্তানদের নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে নিজ পরিকল্পনার বিস্তারিত তুলে ধরবেন।
গতকাল বুধবার কয়েকটি ব্যক্তিগত টুইট বার্তায় ব্যবসা থেকে দূরে থাকার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পরিকল্পনা ঘোষণার কথা জানা গেছে।
এদিকে ট্রাম্প গত মঙ্গলবার নিউইয়র্ক শহরের এক অভিজাত ও বিলাসবহুল রেস্তোরাঁয় তাঁরই নির্বাচন-পূর্ব শত্রু মিট রমনির সঙ্গে ভোজনে অংশ নিয়েছেন। এ ছাড়া তাঁর সঙ্গে বিজয়ভ্রমণে বের হওয়ারও পরিকল্পনা এঁটেছেন তিনি।

একই দল রিপাবলিকান পার্টির দুই নেতা এই ভোজ এমন এক সময় করলেন, যখন আগামী মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদের একজন সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে রমনিকে বিবেচনা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের রাস্ট বেল্টে (উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল) প্রায় হাজার মানুষের কর্মসংস্থান নিয়ে ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যভিত্তিক এয়ারকন্ডিশন প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ক্যারিয়ারের চুক্তির কথা ঘোষণা উপলক্ষে এ ভোজের আয়োজন করা হয়।

এ ব্যাপারে মঙ্গলবার রাতে ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠান ও কর্মসংস্থান যুক্তরাষ্ট্রে ধরে রাখব। ধন্যবাদ ক্যারিয়ার।’

এদিকে নিউইয়র্কের অভিজাত রেস্তোরাঁ জ্যঁ-জর্জেসে মিট রমনিকে নিয়ে ওই ভোজনে এখন পর্যন্ত এটাই স্পষ্ট আভাস যে, ট্রাম্প তাঁর প্রধান কূটনীতিক (পররাষ্ট্রমন্ত্রী) হিসেবে রমনিকে বেছে নিতে পারেন।

ভোজ শেষে রমনি ট্রাম্পের প্রশংসা করে বক্তব্য দেন। এই বক্তব্য এর আগে ট্রাম্পকে নিয়ে করা মন্তব্যের পুরোপুরি উল্টো। রমনি বলেন, নির্বাচনে জয়ী হয়ে ট্রাম্প যে ভাষণ দিয়েছেন ও প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য যে ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তাতে তিনি দারুণভাবে ‘প্রভাবিত’। ট্রাম্পের সঙ্গে ভোজের সময় কাটানোকে তিনি ‘এক চমৎকার সন্ধ্যা’ বলেও আখ্যায়িত করেন।

ট্রাম্পের সঙ্গে এই ভোজ নিয়ে সাংবাদিকদের রমনি বলেন, ‘এ শতকেও যুক্তরাষ্ট্র যে বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে চলেছে তা আমরা দেখতে চলেছি বলে আমি মনে করি। ক্রমেই আমি বেশি আশাবাদী হয়ে উঠছি যে ট্রাম্প হলেন সেই যোগ্য ব্যক্তি, যিনি আমাদের আরও ভালো ভবিষ্যতের পথে নিয়ে যেতে পারবেন।’

ম্যাসাচুসেটসের ৬৯ বছর বয়সী সাবেক গভর্নর মিট রমনি ও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের মধ্যে গত ১০ দিনে এটা দ্বিতীয় মুখোমুখি সাক্ষাৎ। গত ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চলাকালে এই সাবেক গভর্নরই ট্রাম্পকে একজন ‘ঠগবাজ ও জোচ্চর’ বলে আখ্যায়িত করেছিলেন।

ভোজ অনুষ্ঠানে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ী ও ২০১২ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার কাছে হেরে যাওয়া রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী মিট রমনি ছাড়াও অন্যদের মধ্যে ছিলেন ভবিষ্যৎ ট্রাম্প প্রশাসনের চিফ অব স্টাফ রেইনস প্রাইবাস। ছিলেন মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএনের হোয়াইট হাউস-বিষয়ক জ্যেষ্ঠ সংবাদদাতাও।

(টুডে সংবাদ/তমাল)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.comভিজিট করুন, লাইক দিন এবং  শেয়ার করুন