হরেক রঙের উৎসব (পর্ব-১)

27

সাদিয়া ইসলাম : মানুষ হাসতে ভালোবাসে, অন্যকে হাসাতে ভালোবাসে। ভালোবাসে নিজে আনন্দ পেয়ে অন্যকেও সেই আনন্দের ভাগ দিতে, নিজের সঙ্গী করে নিতে চায়। চারপাশের আর সবাইকে নিজের ভালোলাগার কথাটা না জানালে খানিকটা যেন অপূর্ণই থেকে যায়  নিজের আনন্দটা। আর আনন্দকে এই ভাগ করে নেওয়ার ভীষন তাগিদেই সেই কবে, কোন যুগ থেকে মানুষ একের পর এক বানিয়ে চলেছে বন্ধু, গোত্র, জাতি থেকে রাষ্ট্র পর্যন্ত। তবে এতেই কিন্তু থেমে থাকেনি সে। নিজের ভালো লাগাকে বিশ্বের সবার কাছে পৌছে দিতে সেটাকে কেন্দ্র করে তৈরি হয়েছে নানা ধরনের উৎসব। আর বিশ্বের আনাচে-কানাচে গড়ে ওঠা ধর্ম-বর্ণ-গোত্র- জাতি নির্বিশেষে সবার কাছে সমানভাবে জনপ্রিয় হয়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে থাকা রঙ-বেরঙের এমন কিছু উৎসব নিয়েই আমাদের আজকের এই আয়োজন।

১. স্নো আইস ফেস্টিভাল বা তুষার বরফ উৎসব

নাম শুনলেই বুঝতে আর বাকি থাকে না কীসের উৎসব এটি। ঠিক ধরেছেন। চীনের হারবিনের এই জনপ্রিয় উৎসবটির কেন্দ্রবিন্দু হল বরফ সাদা তুষার আর বরফ। জানুয়ারির ৫ তারিখ থেকে ফেব্রুয়ারির ৫ তারিখ পর্যন্ত নিয়মিত চলতে থাকে এই উৎসবটি। বলা হয়, পৃথিবীর সবচাইতে বড় তুষার বরফ উৎসব হল হারবিনের স্নো আইস ফেস্টিভাল। উৎসবের সময় এখানে হরেক রকমের বিশাল আর উঁচু উঁচু ঘর-বাড়ি সহ বিভিন্ন মূর্তি ও নানা জিনিস তৈরি করা হয় । তবে অন্য সব বাড়ি-ঘর বা মূর্তির সাথে এর ভিন্নতা হল এর সবগুলো ভাস্কর্যের নির্মানই করা হয় তুষার আর বরফের স্তম্ভ দিয়ে।

২. হোলি ও পূজা

হিন্দু সম্প্রদায়ের কাছে জনপ্রিয় ও ধর্মীয় তাৎপর্য বহনকারী এই হোলি আর পূজার উৎসবগুলো কেবল সনাতন ধর্মেরই নয়, বরং পুরো পৃথিবীর সব ধর্মের মানুষেরই উৎসব যেন। ভারত , শ্রীলংকা, নেপালসহ বিশ্বের প্রায় সব দেশেই পালিত হয় এই রঙের আবিরে রাঙানো ধর্মীয় উৎসবটি। হোলির সময়ে যেন কারো খেয়ালই থাকে না কে হিন্দু, কে মুসলমান, আর কেই-ই বা অন্য ধর্মের। সবার গায়ের পোশাকই যেন রঙের তুলিতে হাজার রকমের কারুকার্যে ভরে যায় এই হোলি উৎসবে। অন্যদিকে বলা হয়, হিন্দুদের বারো মাসে তেরো পূজা। দূর্গা, কালী, মনসাসহ একের পর এক নানা ধরনের পূজা রয়েছে এই ধর্মের মানুষদের খুশির খোরাক হিসেবে। তবে সবার মনযোগ যে কেবল পূজাতেই আটকে থাকে তা নয়। ধর্ম-বর্ণ- উঁচু-নিচু নির্বিশেষে সবারই আনন্দের উৎস হয়ে ওঠে পূজার আতিথেয়তা আর মেলার রকমারি বাহার।

৩. কার্নিভাল

ইটালির ভেনিসে আয়োজিত এই উৎসবটি ভেনিসের ঐতিহ্যের সাথে মিশে রয়েছে সেই তের শতাব্দী থেকে। তবে পৃথিবীর ও এর মানুষদের বুকে সবচাইতে হৈচৈ এ ভরা এই রোড পার্টিটির জায়গা করে নিতেও খুব একটা বেশি সময় লাগেনি। নানা রকম আয়োজন, রোড শো, জাদু, নাটক ও খেলার চমকে ভরা এই কার্নিভাল প্রিয় ছোট থেকে বড় সবারই।

৪. টুমোরোল্যান্ড

বেলজিয়ামের বুম-এ আয়োজিত এই উৎসবটির বয়স খুব বেশিদিন হয়নি। কিন্তু তাতে কি হয়েছে? ভালো লাগার ক্ষেত্রে ঐতিহ্য থোড়াই টিকতে পারে! প্রতি বছর প্রায় ১ লাখের বেশি লোক বেলজিয়ামে বেড়াতে আসে কেবল টুমোরোল্যান্ড উৎসবের ইডিএম বা ইলেক্ট্রনিক ডান্স মিউজিকের সাথে মেতে উঠতে।