ফার্কের সাথে করা শান্তি চুক্তি অনুমোদনের দ্বারপ্রান্তে কলম্বিয়া

colombian-peace

নিউজ ডেস্ক : কলম্বিয়া ফার্ক বিদ্রোহীদের সাথে করা শান্তি চুক্তি অনুমোদনের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে। এ চুক্তি নিয়ে কংগ্রেসের নি¤œ কক্ষে বিতর্কের পর বুধবার তারা এ পর্যায়ে পৌঁছায়। সিনেটে চুক্তিটি সর্বসম্মতি ক্রমে পাস হয়।

গত মাসে অনুষ্ঠিত গণভোটে প্রথম শান্তি চুক্তি নাকচ হয়ে যাওয়ার পর প্রেসিডেন্ট জুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস কংগ্রেসের মাধ্যমে দ্বিতীয় দফায় করা সংশোধিত শান্তি চুক্তি অনুমোদনের চেষ্টা করছেন। গণভোটে প্রথম দফার শান্তি চুক্তি বাতিল হয়ে যাওয়ায় সারাবিশ্ব প্রচন্ড ধাক্কা খায়।

উল্লেখ্য, এ শান্তি চুক্তির জন্য সান্তোস এ বছরের নোবেল শান্তি পুরস্কার পান ।

এদিকে বিরোধী পক্ষ জানায়, সংশোধিত নতুন চুক্তিতেও কলম্বিয়ার বিপ্লবী সশস্ত্র বাহিনীকে (ফার্ক) অনেক ছাড় দেয়া হয়েছে। কেননা, এই চুক্তি অনুযায়ী ফার্ক দেশের একটি রাজনৈতিক দলে পরিণত হবে।

চুক্তিটি কংগ্রেসে খুব সহজেই পাস হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ সেখানে সান্তোসের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে।

মঙ্গলবার এটি ৭৫-০ ভোটে সিনেটে পাস হয়। এর প্রতিবাদ জানাতে বিরোধী পক্ষের সদস্যরা সিনেট বর্জন করেন।

সান্তোস বলেন, দেশের ৫২ বছরের সংঘাতের অবসানে সিনেটে ঐতিহাসিক এক ভোটে চুক্তিটি অনুমোদনের পক্ষে ৭৫ পড়ে। এর বিপক্ষে কোন ভোট পড়েনি। আমি আশা করছি আজ প্রতিনিধি পরিষদে ভোটের ফলাফল এ রকমই হবে।

ফার্কের সাথে বারবার আলোচনায় বসা সরকারের প্রধান শান্তি আলোচক হামবার্তো ডি লা ক্যল এ চুক্তি অনুমোদনে আইনপ্রনেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। এক্ষেত্রে তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, বামপন্থী গেরিলাদের সাথে করা সামরিক বাহিনীর অস্ত্রবিরতি চুক্তি ‘দূর্বল’ অবস্থায় রয়েছে।

গত ২৯ আগস্ট কলম্বিয়ায় অস্ত্রবিরতি চুক্তি কার্যকরের পর থেকে ফার্কের দুই যোদ্ধা এবং স্থানীয় কয়েকজন সক্রিয় কর্মী নিহত হয়। এরফলে এটি ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।

এ শান্তি চুক্তির প্রধান বিরোধী দেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট আলভারো উরিব এবং তার মিত্ররা যুক্তি তুলে ধরে বলছেন, এই চুক্তির মধ্যদিয়ে যুদ্ধাপরাধের শাস্তি থেকে বিদ্রোহীদের অব্যাহতি দেয়া হচ্ছে। তারা আরো বলছেন, এ ধরনর জঘন্য অপরাধের দায়ে বিদ্রোহীদেরকে কারাগারে পাঠানোর পরিবর্তে তাদের কংগ্রেসে আসন দেয়া হচ্ছে।

এদিকে এ চুক্তির পক্ষে-বিপক্ষে বুধবার কংগ্রেসের সামনে লোকজনকে অবস্থান নিতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, কলম্বিয়ায় এ দীর্ঘ সংঘাতে প্রায় ২ লাখ ৬০ হাজার লোক নিহত ও ৬০ হাজার লোক নিখোঁজ হয়। (টুডেসংবাদ/এআরএ)