নরসিংদী জেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে আবারো উত্তপ্ত রাজনৈতিক অঙ্গন

rasi

এম লুৎফর রহমান নরসিংদী প্রতিনিধি  : আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে নরসিংদী আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক অঙ্গন। মনোনয়নকে কেন্দ্র করে আবারও সরগরম হয়ে উঠেছে রাজনৈতিক মাঠ। গত ২৫ নভেম্বর শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের সাধারন সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জেলার ৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্য থেকে এড. আসাদুজ্জামানকে আওয়ামীলীগের চূড়ান্ত মনোনয়ন প্রদান করেন। মনোনয়নের পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে উঠতে শুরু করে নরসিংদীর রাজনৈতিক অঙ্গন। সম্প্রতি (২৯ নভেম্বর) মঙ্গলবার ফেসবুকে আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীরা সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে মনোনয়ন পরিবর্তন হওয়ার কথা জানায়। এ নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠে। নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক কৌশিক কায়কোবাদ কেনি বলেন, মনোনয়ন দেয়ার ক্ষমতার অধিকারী একমাত্র দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা। যেখানে নেত্রী দেশের বাহিরে সেখানে আমার প্রশ্ন তাদেরকে মনোনয়ন পরিবর্তন করে দিলো কে ? জননেত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের বাহিরে গিয়ে জনমনে এই বিভ্রান্তি ছড়ানোর উদ্দেশ্য কি ? নরসিংদীর মাটিতে হাইব্রিডদের রামরাজত্যে তাদের পক্ষে অসম্ভব কিছুই নাই। যতদূর মনে হচ্ছে আওয়ামীলীগ এর প্রার্থীকে পরাজিত করতেই তাদের এই বিভ্রান্তির কৌশল। জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে আহ্বান জানাবো আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করুন বিভ্রান্ত ছড়ানো বন্ধ করুন। এ বিষয়ে নরসিংদী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি শামীম নেওয়াজের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন এ বিষয়ে কিছু বলতে চাচ্ছি না। সময় হলে সবাই সত্য জানতে পারবে। সবমিলিয়ে নরসিংদীর রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত হয়ে উঠায় আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন সাধারন জনগন।