তুরস্কের শিক্ষকদের পাশে পাকিস্তানের আদালত

74

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : তুরস্কের শিক্ষকদের পক্ষে রায় দিল পাকিস্তানের লাহোর হাইকোর্ট। দেশটি থেকে তুরস্কের শিক্ষকদের ১ সপ্তাহের মধ্যে পরিবার সহ চলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল পাকিস্তানের ইমিগ্রেশন বিভাগ। তারা জানায়, ভিসার মেয়াদ আর বাড়ানো হবে না এই শিক্ষকদের। আর তাদের এমন সিদ্ধান্তের বিপক্ষে রায় দিল পাকিস্তানের আদালত। পাকিস্তানের ২৮টি ‘পার্ক-তার্ক’ স্কুলে ১০০ জন তুরস্কের শিক্ষক চাকুরী করছিলেন। তাদের ভিসার মেয়াদ শেষ পর্যায়ে থাকায় স্কুলের মাধ্যমে ভিসার আবেদন করা হয় ইমিগ্রেশন বিভাগে। কিন্তু তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সফরকে কেন্দ্র করে এই শিক্ষকদের ভিসার মেয়াদ বাড়াতে অস্বীকৃতি জানায় পাকিস্তান ইমিগ্রেশন বিভাগ। উল্টো শিক্ষকদের জানায় ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে এক সপ্তাহের মধ্যে পরিবার সহ তাদের তুরস্কে চলে যেতে হবে।

এর আগে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট জানায়, পাকিস্তানে কাজ করা এই তুরস্কের শিক্ষকেরা যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাসিত ধর্মীও নেকা গুলেনের সহচর। এ কারণে পাকিস্তানের উচিত এই শিক্ষকদের তুরস্কে ফেরত পাঠানো। লাহোর হাইকোর্ট জানুয়ারি পর্যন্ত তাদের বহিষ্কার আদেশ স্থগিত ঘোষণা করেছে। দেশটির স্বরাষ্ট্র বিভাগকে এই নির্দেশনা কার্যকরের আদেশ দেয় আদালত।

পাকিস্তান জানায়, দেশের সিন্ধু ও পেশোয়ারের আদালতও শিক্ষকদের আশ্রয় দেয়ার পক্ষে নিজেদের অবস্থানের কথা জানিয়েছে। এ বছর জুলাই মাসে তুরস্কে ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকে ব্যাপক ভিত্তিতে গ্রেপ্তার ও ধরপাকড় শুরু করে দেশটির সরকার। এই অভ্যুত্থানের জন্য তুর্কি ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলেনকে দায়ী করে প্রেসিডেন্ট এরদোগান এবং গুলেন সহ তার সহচরদের তুরস্কে ফেরত পাঠানোর জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে অনুরোধ জানান তিনি।

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com