বিজয়ের মাসে বিটিভিতে মাসব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠান

58

শিল্প বিনোদন: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিটিভিতে প্রচার হবে মাসব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠান। ইতিমধ্যে বেশ কিছু অনুষ্ঠানের রেকির্ডিং সম্পন্ন হয়েছে।  আজ থেকে প্রচার শুরু হচ্ছে দুটি অনুষ্ঠানের। এসব অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন শিল্পী, সাংবাদিক, কথাসাহিত্যিক, শিক্ষক, রাজনীতিবিদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ সমাজের নানা পেশার মানুষ।
আজ ১ ডিসেম্বর থেকে ১৬ ডিসেম্বর পরযন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টায় প্রচার হবে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে প্রচারিত এম আর আখতার মুকুলের চরমপ্রত্র নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান ‘মুক্ত কর ভয়’। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আফরোজা হক রিনার পরিকল্পনায় বিটিভির এই অনুষ্ঠানটির প্রযোজনা করেছেন মাহফুজা আক্তার। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন মডেল ও অভিনেত্রী নওশীন। অংশ নিয়েছেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী-কলাকুশলী, মুক্তিযুদ্ধে সরাসরি অংশ নেওয়া ১৩জন মুক্তিযোদ্ধা এবং বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।
স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী-কলাকুশলীরা হলেন মোঃ আবদুল জব্বার, বুলবুল মহলানবীশ, নমিতা ঘোষ, মালা খুররম, সৈয়দ হাসান ইমাম, নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, কবি আসাদ চৌধুরী, সুজেয় শ্যাম, ডালিয়া নওশীন, তপন মাহমুদ, রেজাউল করিম, রূপা ফরহাদ ও আসফাকুর রহমান খান। অংশ নিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা বীর প্রতীক মোজাম্মেল হক, মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান, আফজাল হোসেন, এনায়েত হক গামা, শামসুল হক, মোঃ হারুন অর রশীদ, তসলিম আহমেদ, কুতুব উদ্দিন আহমেদ, নুরুল ইসলাম বাচ্চু, রোকেয়া কবীর, উম্মে হাসান, বদিউজ্জামান ও আবুল কালাম আজাদ দারু। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে প্রচারিত এম আর আখতার মুকুলের চরমপত্রের অংশ বিশেষ শোনেন অতিথিগণ। এরপর সেই অংশের সূত্র ধরে তারা মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন, নানা বিষয়ে আলোকপাত করেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। অনুষ্ঠানের শেষাংশে একটি করে গান গেয়ে শোনান শিল্পীরা।
এ বিষয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ কেবল অস্ত্র নিযে শত্রুর মোকাবিলা ছিল না, এটা একটা বিশাল রাজনৈতিক ও আর্থসনামাজিক ঘটনা। অনেকেই যেমন সরাসরি অস্ত্র নিয়ে শত্রুর মোকাবিলা করেছেন, তেমনি স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী কিংবা শব্দসৈনিকেরা তাদের শিল্পকর্ম দিয়ে শত্রুর মনোবল ভেঙে মুক্তিযোদ্ধাদের মনোবল চাঙ্গা রেখেছেন, দেশের জন্য যুদ্ধ করেছেন। এমআর আখতার মুকুলের চরমপত্র তেমনি এক দলিল। মুক্তিযুদ্ধের সেইসব অস্ত্রসৈনিক এবং শব্দসৈনিকদের একত্র করে এই অনুষ্ঠান হয়েছে। স্বাধীনতা উত্তর প্রজন্মের কাছে এই অনুষ্ঠানটি মুক্তিযুদ্ধের একটি অনন্য দলিল হয়ে থাকবে। আশা করছি সব মিলিয়ে অনুষ্ঠানটি সবার ভালো লাগবে।’
এছাড়া, আজ ১ ডিসেম্ভর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পরযন্ত প্রতিদিন রাত ১০টার ইংরেজি সংবাদের পর প্রচার হবে মুক্তিযুদ্ধের তাৎপরয ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠান। উপস্থাপনায় ড. নুজহাত চৌধুরী, শবনম আজিম ও সোহেল হায়দার চৌধুরী। প্রযোজনায় মাহফুজা আক্তার, মনিরুল হাসান ও ইমাম হোসেন। অনুষ্ঠানের অতিথি থাকবেন দেশের বিশিষ্ট সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ, কবি, সাহিত্যিক, নাট্য ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বসহ নানা পেশার মানুষ। ইতিমধ্যে বিভিন্ন পর্বে অংশ নিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ড. হারুন অর রশীদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুস, অধ্যাপক মেসবাহ কামাল, কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, সাংবাদিক আবেদ খান, ডাক্তার দিপু মনি এমপি, অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান, অধ্যাপক মাহফুজা খানম, নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার, সাংবাদিক ও শহীদ পরিবারের সন্তান জাহিদ রেজা নূর, কবি মোহাম্মদ নুরুল হুদা, অধ্যাপক ড. মুনতাসির মামুন, কবি মোহাম্মদ সামাদ, এডভোকেট আফজাল হোসেন, মুজিবুর রহমান, কাজী খলিকুজ্জামান আহমদ, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ।
বিটিভি মহাপরিচালক এসএম হারুন অর রশীদ বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ আমাদের জন্য এক বিশাল ঘটনা, বিশাল গর্ব। সেই যুদ্ধে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র এবং আম আর আখতার মুকুলের চরমপত্র একটি অনন্য দলিল, অণুপ্রেরণা। আমরা নতুন প্রজন্মের কাছে সেই অনুপ্রেরণার কথা, সেই দলিলটি তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। এছাড়া, মাসব্যাপী অন্যান্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধকে স্বাধীনতা উত্তর প্রজন্মের কাছে সুন্দর এবং সঠিক ভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।’

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com