খাওয়ার সময় অমনোযোগী হলে….

slow-eating2

নিউজ ডেস্ক : অমনোযোগী হয়ে গাড়ি চালানো যেমন বিপজ্জনক, ঠিক তেমনই অমনোযোগী হয়ে খাওয়াও স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। সচরাচর দেখা যায়, একা শান্ত মনে খেতে পারে না কেউ । সে সময় মনোরঞ্জন চাই। হয় টিভি, নয় তো প্রচুর গল্প। খাওয়াটা তখন সেকেন্ডারি। মন অন্যদিকে। খাওয়ায় নেই। ফলে কী খাচ্ছি, ভালো না মন্দ- আর বিচার্য নয়। কিন্তু জানেন কি, খেতে বসে অমনোযোগী হলে শরীরের কতখানি ক্ষতি হতে পারে। শুনুন তা হলে।

১. হজমের সমস্যা

কী খাচ্ছি সে ব্যাপারে খেয়াল না দিলে কিন্তু একাধিক হজম সমস্যা হতে পারে। নিয়ম হল মন দিয়ে, খাবার ভালো করে চিবিয়ে তারপর গিলে ফেলা। অমনোযোগী হলে ভালো করে চিবিয়ে খায় না অনেকে। ফলে হজমের সমস্যা দেখা দেয়। তাই উচিত মন দিয়ে চিবিয়ে খাওয়া।

২. মোটা হওয়ার সমস্যা

টিভি দেখতে দেখতে খেলে অনেক সময় পরিমাণে বেশি খেয়ে ফেলার প্রবণতা তৈরি হয়। অতিরিক্ত খাওয়া থেকে তৈরি হয় ওজন সমস্যা। ওজন মাত্রাতিরিক্ত বাড়তে থাকে। ওবিসিটি হওয়ার কিন্তু এটাও একটা কারণ। তাই খাবার সময় টিভি বন্ধ।

৩. বিষম লাগার ভয়

খেতে খেতে খাবারের টুকরো শ্বাসনালিতে ঢুকে মৃত্যু হয়েছে অনেকের। এমনটা হয় যদি খেতে খেতে কেউ খুব বকবক করে। খাবার টেবিলে ঝড় তুলে দেয়। তাই খেতে খেতে কথা নয়। চুপ করে খান।

৪. মাল্টিটাস্কিং নয়

খেতে খেতে একাধিক কাজ করা থেকে বিরত থাকুন। খান টেবিলে বসে। খাটে বা পড়ার টেবিলে ল্যাপটপে কাজ করতে করতে খাবেন না। এতে খাওয়ার স্বাদ বুঝতে পারবেন না। দুই, খাওয়ায় তৃপ্তি আসবে না। মনে হবে কিছুই খাওয়া হয়নি। আপনার মতো কাজ পাগল মানুষ এরপর কফির দিকে হাত বাড়াবেন এবং সেখানেই তৈরি হবে স্বাস্থ্য সমস্যা। খাওয়ার পরপরই কফি খেলে শুরু হবে শারীরিক অস্বস্তি, বদহজম, মাথা ব্যথা। (টুডেসংবাদ/এআরএ)