নির্বাচন তদারকিতে আ.লীগের দুটি টিমও গঠন

taymur

নিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে মাঠে নামবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা। একই সঙ্গে ঢাকা থেকে এবং নারায়ণগঞ্জে বসে এই নির্বাচনকে সার্বক্ষণিক তদারক করতে দলটির দুটি টিমও গঠন করা হয়েছে।

দলটির সম্পাদক পর্যায়ের দুজন নেতা বলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যাঁরা মন্ত্রী এবং সাংসদ নন, তাঁরা প্রচারণায় অংশ নিতে যাবেন নারায়ণগঞ্জে। আর কমিটিতে যাঁরা মন্ত্রী এবং সাংসদ, তাঁরা ঢাকায় বসে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করবেন।

দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ওবায়দুল কাদের এ নির্বাচনে প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্বে থাকবেন। আর সমন্বয়ক হিসেবে থাকবেন দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি ও আবদুর রহমান। ঢাকায় বসে তাঁরা সার্বক্ষণিক তদারক করবেন। আর নারায়ণগঞ্জে সমন্বয় করতে সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম ও মহিবুল হাসান চৌধুরীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। শামীম ও মহিবুল প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই নির্বাচনী এলাকায় থাকবেন। সুযোগ ও সুবিধামতো পরে তাঁদের সঙ্গে দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা যোগ দেবেন।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘নির্বাচনের আচরণবিধির প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থাশীল হয়ে যতটা সম্ভব আমরা প্রচারণায় নামব। তবে এই নির্বাচনকে আমরা স্থানীয় নির্বাচন হিসেবেই দেখছি। তবে আমরা সার্বক্ষণিক মনিটরিং করব।’

আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর দুজন সদস্য বলেন, নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের মধ্যে চরম বিরোধ রয়েছে। এটি প্রকাশ্য। সুতরাং এসব কিছু তাদের মাথায় থাকবে। আর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন, এরপরে উপজেলা নির্বাচন, পৌরসভা নির্বাচন এবং সর্বশেষ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে তাঁদের বিতর্কের মুখে পড়তে হয়েছে। ঠিক এরপরই যদি নারায়ণগঞ্জের নির্বাচন বিতর্কিত হয়, তাহলে বিএনপি বড় ইস্যু হাতে পাবে। ঠিক এ কারণে নারায়ণগঞ্জ নির্বাচন নিয়ে সরকার সতর্ক অবস্থানে থাকবে আওয়ামী লীগ। ফলে প্রভাব বিস্তার নয়, প্রচারণার মাধ্যমেই দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে চান তাঁরা।

তফসিল অনুযায়ী, ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন হবে। ২৪ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ। যাচাই-বাছাই ২৬ ও ২৭ নভেম্বর। ৪ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ। প্রতীক বরাদ্দের পর ৫ ডিসেম্বর থেকেই নির্বাচনী প্রচারণায় নামবেন দলটির নেতারা।

(টুডে সংবাদ/উদয়া)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com ভিজিট করুন, লাইক দিন এবং  শেয়ার করুন