সম্পর্ক রাখুন বাজেটের মধ্যে

141

লাইফস্টাইল ডেস্ক : অর্থ বিষয়ে সঙ্গিনীর সাথে আলোচনার বিষয়কে অনেকে অপ্রয়োজনীয় এবং অস্বস্তিকর বলে মনে করেন। এ ক্ষেত্রে ‘তুমি খুব বেশি নিয়ন্ত্রণ করতে চাও’ বা ‘খরচ নিয়ে বেশি সাবধানী’ ইত্যাদি কথাগুলো আসে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বলা হয়, পয়সা বিষয়ের আলোচনায় অধিকাংশ জুটি তা এড়িয়েই চলেন। অনেকেই অভিযোগ করেন, অর্থ নিয়ে স্বামী বা স্ত্রী এমন আচরণ করেন যে অন্যজন এ নিয়ে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। কিন্তু কোনো ঝামেলা ছাড়াই পয়সা বিষয়ে আলোচনা সেরে ফেলতে পারেন অনায়াসে। এতে বরং সম্পর্ক স্বাস্থ্যকর হয়ে ওঠে। সম্পর্কটা বাজেটের মধ্যেই নিয়ে আসা যাবে।

১. অর্থব্যবস্থাপনায় মানুষ অভ্যস্ত হয়ে ওঠে বাবা-মায়ের আচরণ দেখে। পুরনো ধারণা থেকে বেরিয়ে আসুন। দুজনের মধ্যে অর্থ নিয়ে আলোচনায় সম্পর্ক আরো ভালো হয়ে ওঠে। জীবনটাকে আরো সহজ করতে এ নিয়ে সততার সঙ্গে আলোচনা করুন।

২. অর্থ বিষয়ে আলোচনা করতে চাইলে সকাল সকাল কাজটি সারুন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এ কাজটি করেত যাবেন না। তাতে অযথাই রাতের ঘুম হারাম হয়ে যাবে। সকালে সতেজ মস্তিষ্ক নিয়ে কিছু নোট লিখে আলোচনার শুরু হতে পারে। সাধারণত সারাদিন কাজের পর মানুষের মন ও মস্তিষ্ক থাকে উত্তেজিত। তাই এ সময় আলোচনা তেমন ফলপ্রসূ হবে না।

৩. বিশেষজ্ঞদের মতে, অর্থ সম্পর্ক নষ্ট করতে পারে যদি একে খুব বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। যদিও জীবনের জন্য অর্থব্যবস্থা অতি জরুরি বিষয়। স্বচ্ছতা এবং ঠাণ্ডা মাথায় আলোচনা করুন। এমনভাবে কথা বলবেন না যে কোনো কর্পোরেট চুক্তি করতে বসেছেন। এতে মানসিক শান্তি নষ্ট হয়ে যাবে।

৪. একটি লক্ষ্যকে কেন্দ্র করে দুজনই এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। একই চাওয়া-পাওয়া নিয়ে এগিয়ে যান। আগে দুজনের মানসিকতা ঠিক করে নিন কি চাইছেন। জীবনটাকে কিভাবে চালাতে চান তা নিয়ে হয়তো দুজনের ভিন্ন ভিন্ন চিন্তা থাকতে পারে। এদের সমন্বয় করুন। একজনের চিন্তা গুরুত্ব না দেওয়ার মানসিকতা রাখলে চলবে না। দুজনের বিষয়গুলো দুজনের কাছেই গুরুত্বপূর্ণ হতে হবে। দুজনের ইচ্ছা পূরণেই কিছু অর্থ আলাদা করে রাখার পরিকল্পনা করুন।

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com