পাকিস্তানের সেই চা-ওয়ালা আরশাদ এবার র‍্যাম্পে ‘মহারাজা’

51

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের ইসলামাবাদের পেশোয়ার চকের নীল চোখের চা-ওয়ালা আরশাদ খানের কথা মনে আছে নিশ্চয়ই। আগে মডেল হয়েছেন। এবার বর-কনের পোশাক নিয়ে এক ফ্যাশন শোতে র‍্যাম্পের মডেল হয়েছেন তিনি। শেরওয়ানি পরে র‍্যাম্পে হাঁটা দেখে অনেকে তাঁকে ‘মহারাজা’ বলেছেন।

পাঞ্জাবের লাহোরে গত শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে ‘ফ্যাশন ব্রাইডাল কচার উইক’ শীর্ষক ফ্যাশন শো। রানওয়েতে নকশাকার মেধ, আইভি, ইসালান ইকবাল, ওয়ারদা সালিম, ফাইজা সাকলাইন ও উজমা বাবরের নকশা করা বিয়ের পোশাকে র‍্যাম্পে হাঁটেন মডেলরা। নামীদামি এই মডেলদের মধ্যে ছিলেন কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হইচই ফেলে দেওয়া নীল চোখের সেই চা-ওয়ালা। অনেকে ভেবেছিলেন, আরশাদকে দিয়ে কিছু হবে না, তাদের তিনি চিন্তায় ফেলে দিয়েছেন। তিনি হারিয়ে যাননি।

লাহোরের ‘ফ্যাশন ব্রাইডাল কচার উইক’-এ মাত্র পাঁচ মিনিটের জন্য র‍্যাম্পে হাঁটেন আরশাদ খান। জিগ্গি শেরওয়ানি পরে র‍্যাম্পে হাঁটা দেখে অনেকে তাঁকে ‘দ্য মডার্ন মহারাজা’ বলে মন্তব্য করেছেন।

খবরে বলা হয়েছে, আরশাদ কত দূর পর্যন্ত যেতে পারবেন, এখন দেখার বিষয় সেটাই।

কয়েক মাস আগে ইনস্টাগ্রামে জিয়া আলী নামের এক শৌখিন নারী আলোকচিত্রী আরশাদের ছবি পোস্ট করেন। এরপর সেই ছবিটি টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সাড়া ফেলে। ওই সময় অনেকেই চা-ওয়ালা হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন। নীল চোখের চা-ওয়ালাকে নিয়ে শুধু পাকিস্তানের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের এই উন্মাদনা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরেও ঠাঁই করে নিয়েছে। অনলাইনভিত্তিক পোশাক বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ফিটইন তাদের পণ্যের মডেল হওয়ার জন্য তাঁর সঙ্গে চুক্তি করেছে। এরপর এবার র‍্যাম্পে মডেল হলেন আরশাদ।

২৫ বছর ধরে আরশাদ ইসলামাবাদে বাস করছেন। তাঁরা ১৭ ভাইবোন। তিনি এই চা দোকানে যোগ দিয়েছেন মাত্র কয়েক মাস আগে।

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com