হোয়াটস অ্যাপ মেসেজে বিপদের শঙ্কা

48

বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডেস্ক : কম খরচে ইন্টারনেটে যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপ, টুইটার। আগে এই মাধ্যমে এসএমএসের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় তথ্য আদান-প্রদান হতো। তবে এখন দিন বদলেছে।

সোশ্যাল মিডিয়া সাইট ফেসবুক মেসেজ পাঠানোর সেই খরচ অনেকটাই কমিয়ে দিয়েছে। চালু করেছে মেসেজিং সাইট হোয়াটস অ্যাপ। এর মাধ্যমে এখন অনেক সহজেই কথা বলা যায়। সেইসঙ্গে কমেছে খরচও।

দিনের অধিকাংশ সময়ই হোয়াটস অ্যাপে পরিচিতদের সঙ্গে কথাবার্তা বলা যায় খুবই কম খরচে। সহজেই দেখা যায়, বন্ধুদের পাঠানো মেসেজ, ছবি, ভিডিও। কিন্তু এই মাধ্যমে পাঠানো মেসেজ থেকে আমাদের বিপদে পড়ারও শংকা রয়েছে।

যেমন কিছুদিন আগেই হোয়াটস অ্যাপ ভিডিও কলিংয়ের একটি ফিচারের ঘোষণা দেয়। এরপর থেকেই অসংখ্য হোয়াটস অ্যাপ ব্যবহারকারীর কাছে একটি মেসেজ আসে। যাতে বলা হয়, ‘You`re invited to try WhatsApp Video Calling feature. Only people with the invitation can enable this feature.’ এই মেসেজটিতে যে লিঙ্ক দেওয়া রয়েছে, সেটি হোয়াটস অ্যাপ কর্তৃপক্ষের নয়, হ্যাকারদের তৈরি। ওই লিঙ্কে ক্লিক করলে, গ্রাহকের ফোনে থাকা সব জরুরি এবং ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাকারদের হাতে চলে যাবে।

হোয়াটস অ্যাপ জানিয়েছে, এমন জালিয়াতির ঘটনা যখন-তখনই ঘটতে পারে। তাই পরিচিতদের পাঠানো যে কোনো লিঙ্কে ঢোকার আগে অবশ্যই যাচাই করে নিতে হবে। হোয়াটস অ্যাপের নাম করে পাঠানো জাল মেসেজে যে কোনো সময়ে প্রতারিত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। তাই সাইবার ক্রাইম থেকে সাবধান হতে হবে সবাইকেই।

(টুডে সংবাদ/মেহেদী)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com