ঘুমরের ছন্দেই বাজিমাৎ দীপিকার

dipika

বিনোদন ডেস্ক : বাজিরাও মাস্তানির পর আবার এক নয়া প্রজেক্ট নিয়ে, অভিনব রুপে হাজির হতে চলেছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালি। এবারে তার চমক ‘পদ্মাবতী’। বাজিরাও মস্তানির পর এবার পদ্মাবতী। আবারও দীপিকা। এই ছবিতে উঠে আসবে রাজপুত সংস্কৃতির নানা দিক। আর তারই মধ্যে দেখা যাবে তাদের ট্রাডিশনাল নৃত্যশৈলী ‘ঘুমর’ ।

সঞ্জয় লীলা বনশালি মানেই জাঁকজমকপূর্ণ সেট। আর এ ছবিও ব্যতিক্রম নয়। ‘ঘুমর’ গানের দৃশ্যায়নে চিতোরগড় দুর্গও দেখতে পাবেন দর্শকেরা, আর দুর্গের আদলে এই সেটটি তৈরি করতে সময় লেগেছে মোট ৪০ দিন।

সমগ্র বিষয়টি একেবারে নিখুঁতভাবে তুলে ধরতে ইন্টিরিয়ার ডিজাইনে যথেষ্ট পরিশ্রম করেছেন সকলে, রয়েছে রাজস্থানী পেন্টিং থেকে ৪০০ প্রদীপও। আর সেসব প্রদীপ জ্বালাতে সময় লেগেছে দু’দিন। কি অবাক হচ্ছেন? এখানেই শেষ নয়, জয়পুরের বহু নৃত্যশিল্পী থেকে মিউজিশিয়ানরাও অংশগ্রহণ করেছেন এই বিশেষ গানটিতে।

রানি পদ্মাবতীর চরিত্রে রয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। পদ্মাবতীর প্রতি আলাউদ্দিন খিলজির প্রবল আগ্রহ, আর এই বিষয়টিই নাটকীয় ভাবে উঠে আসবে বনশালির ছবিতে। মস্তানির ভূমিকায় দীপিকা যেমন ঝড় তুলেছিলেন, তেমনই কি পদ্মাবতীও মন কাড়বে খিলজির পাশাপাশি, আপামর জনগণের? উত্তর পেতে একটু অপেক্ষা। (টুডেসংবাদ/এআরএ)