অভিযুক্ত মরিনহো

mourinho

স্পোর্টস ডেস্ক : রোববার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম ওয়েস্ট হ্যামের মধ্যকার ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের ম্যাচে অশোভন আচরণের দায়ে ফুটবল এসোসিয়েশন (এফএ) ইউনাইটেড বস হোসে মরিনহোকে অভিযুক্ত করেছে। ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়।
ঐ আচরণের কারনে ম্যাচ চলাকালীন মরিনহোকে ডাগ আউট থেকে স্ট্যান্ডে পাঠিয়ে দেয়া হয়। আগামী ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের বিপক্ষে কথা বলার সময় পেয়েছেন মরিনহোর।

গত তিনটি প্রিমিয়ার লীগের ম্যাচে এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মত মরিনহোর বিপক্ষে অভিযোগ উত্থাপিত হলো। প্রথমার্ধ চলার মাঝামাঝিতে ডাগ আউটে রাখা পানির বোতলে লাথি মারায় মরিনহোকে অভিযুক্ত করে এফএ। একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে রেফারী জন মস পল পগবাকে হলুদ কার্ড দেখালে উত্তেজিত হয়ে ঐ কাজ করেছেন মরিনহো।

ম্যাচ শেষে বরাবরের মতই ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে নিজে উপস্থিত ছিলেন না মরিনহো। তার অনুপস্থিতিতে সেখানে উপস্থিত চিলেন সহকারী কোচ রুই ফারিয়া।

এ সম্পর্কে ফারিয়া বলেছেন, রেফারী মরিনহোকে বিষয়টি বুঝিয়ে বলেছে। এখানে এর বেশী কিছু বলার নেই। আমি মনে করি পগবার হলুদ কার্ডে হতাশ হয়েই মরিনহো এই কাজ করেছেন। এটা অবশ্যই আমাদের বিপক্ষে অন্যায় করা হয়েছে। ফাউলটা আমাদের বিপক্ষে ছিল, কিন্তু রেফারী ভুল বুঝেছে। আমি দলের দায়িত্ব নেইনি, শুধুমাত্র স্বাভাবিক দায়িত্ব পালন করতে এখানে এসেছি। হোসেই দলের বস হিসেবে আছেন এবং তিনি ক্লাবের জন্য সেরাটা দেবার চেষ্টাই করছেন।

গত অক্টোবরে বার্নলির বিপক্ষে ম্যাচে অশোভন আচরনের দায়ে মরিনহোকে এক ম্যাচ টাচলাইন থেকে নিষিদ্ধসহ ৮ হাজার পাউন্ড জরিমানা করা হয়েছিল। কিন্তু এত অল্প সময়ের মধ্যে আবারো একই আচরণে এবার হয়ত আরো কঠোর শাস্তির মুখে পড়তে পারেন দ্যা স্পেশাল ওয়ান।

হলুদ কার্ডের কারণে পগবা ইউনাইটেডের পরবর্তী লীগ কাপে ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে বুধবার খেলতে পারছেন না। ওল্ড ট্র্রাফোর্ডে গত চারটি ম্যাচেই ইউনাইটেড ড্র করেছে। (টুডেসংবাদ/এআরএ)