রোনালদো সব কৃতিত্ব দিলেন জিদানকে

স্পোর্টস ডেস্ক : নিজের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে অন্যতম সেরা একটি মৌসুম কাটানোর সব কৃতিত্বই রিয়াল মাদ্রিদের কোচ জিনেদিন জিদানকে দিলেন দলটির তারকা স্ট্রাইকার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

স্প্যানিশ গণমাধ্যমে প্রকাশিত এক রিপোর্টের ভিত্তিতে জানা যায় রিয়ালের সাবেক কোচ রাফায়েল বেনিতেজের সাথে রোনালদোর সম্পর্কটা খুব একটা মধুর ছিল না। জানুয়ারিতে সানতিয়াগো বার্নাব্যুতে বেনিতেজের স্থলাভিষিক্ত হন জিদান।

মাদ্রিদে যোগ দেবার পরে নেতিবাচক স্টাইলে ফুটবল খেলানোর জন্য বেনিতেজের সমালোচনাও কম হয়নি। কিন্তু জিদান আসার পরপরই দলের চেহারা পাল্টে যায়।

টানা ১২টি ম্যাচে জয়ী হয়ে লা লিগা চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনার থেকে মাত্র এক পয়েন্ট পিছনে থেকে লীগ শেষ করে গ্যালাকটিকোরা। আবার এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে পেনাল্টি শ্যুট আউটে জয়ী হয়ে চ্যাম্পিয়নস লীগে শিরোপা নিজেদের করে নেয়।

গত জুনে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত ইউরো ২০১৬’র শিরোপা জিতে পর্তুগালের হয়ে প্রথম বড় কোন টুর্ণামেন্টের শিরোপার স্বাদ গ্রহণ করেন রোনালদো। আর ক্লাব ও দেশের হয়ে বড় এই সাফল্যগুলোই ৩১ বছর বয়সী এই তারকাকে এবারের মৌসুমে ইউরোপের সেরা খেলোয়াড়ের তালিকায় ফেবারিট করে তুলেছে।

নিজের এই সাফল্যের পিছনে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সাবেক এই ফরোয়ার্ড কোচ জিদানের প্রশংসা করতে ভুল করেননি। রোনাল্ডো বলেন, গত মৌসুমে আমাদের শুরুটা মোটেই ভাল হয়নি। কিন্তু শেষটাতে আমরা দারুন খুশী।

আমি মনে করি জিদান আসার পরেই সবকিছুর পরিবর্তন হয়েছেন। আমরা চ্যাম্পিয়নস লীগে জিতেছি। আমি ছিলাম সর্বোচ্চ গোলদাতা। সম্ভবত ক্যারিয়ারে এটাই আমার সেরা মৌসুম। শুধুমাত্র শিরোপার দিকে নজড় দিলেও দেখা যাবে এটাই আমার সেরা মৌসুম।

পর্তুগালের হয়ে আমি ইউরো ২০১৬ জিতেছি যা ক্যারিয়ারের অন্যরকম একটি সফলতা।
গত মৌসুমের ইউরোপের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের এ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় রোনালদোর ছাড়াও আরো আছেন রিয়ালের আরেক তারকা গ্যারেথ বেল ও এ্যাথলেটিকো ফরোয়ার্ড এন্টোনিও গ্রিয়েজমান।

নিজের ব্যক্তিগত এই অর্জণকে অবশ্য রোনাল্ডো দলীয় সাফল্যের ওপরে স্থান দিতে চাননা। তার মতে ব্যক্তিগত পুরস্কার নয়, বরং দলীয় সাফল্যই আমার কাছে মূখ্য। ইউরোপের এ্যাওয়ার্ডের জন্য বেল ও গ্রিয়েজমানকে সাথে পেয়ে আমি দারুন খুশী। এই শিরোপা চালু হবার পর থেকে এ পর্যন্ত সবসময়ই আমি সেখানে ছিলাম, তিনবার অবশ্য জিতেছি।

এই পুরস্কার এটাই প্রমান করে যে পুরো মৌসুমে আমি ভাল খেলেছি, শুধুমাত্র ব্যক্তিগত ভাবে নয়, দলীয়ভাবেও। রিয়ালের হয়ে চ্যাম্পিয়ন লীগের শিরোপা অর্জন সত্যিই বিশেষ কিছু।

২০১৫ সালে ইউরোপের বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের খেতাব জিতেছিলেন বার্সেলোনা তারকা লিয়নেল মেসি। কিন্তু লা লিগায় শিরোপা পেলেও কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনা পরাজিত হওয়ায় এবার তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকায়ও নাম লেখাতে পারেননি মেসি।

(টুডে সংবাদ/তমাল)

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে www.todaysangbad.com